“এক বছর ডেঙ্গু প্রতিরোধে অভিযান চালানো দরকার”

প্রকাশিতঃ ১:৫৯ অপরাহ্ণ, শুক্র, ৯ আগস্ট ১৯

"এক বছর ডেঙ্গু প্রতিরোধে অভিযান চালানো দরকার"

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া ডেঙ্গু রোগের প্রকোপকে জাতীয় সমস্যা বিবেচনা করে আগামী একবছর ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধী অভিযান’ অব্যাহত রাখার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলের নেতারা। এ জন্য স্থানীয় সরকার, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে সারাদেশে অভিযান অব্যাহত রাখার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

বৃহস্পতিবার (০৮ আগস্ট) ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার জন্যে ১৪ দল আয়োজিত জনসচেতনতা কর্মসূচিতে তারা এ আহ্বান জানান। দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে জাসদ কার্যালয়ের সামনে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সমাবেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেন, শেখ হাসিনার নির্দেশ, ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ। আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের মানুষকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশকে জঙ্গিমুক্ত করেছি। দেশকে অশুভ শক্তির হাত থেকে রক্ষা করেছি। দেশকে কেন আমরা ডেঙ্গুমুক্ত করতে পারবো না? দেশের মানুষ যদি ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসে তাহলে অবশ্যই আমরা ডেঙ্গুমুক্ত করতে পারবো।

তিনি বলেন, আমি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, সিটি করপোরেশেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে বলবো আগামী একবছর ডেঙ্গু বিরোধী অভিযান অব্যাহত রাখুন। আমাদের এখন কাজ হবে ঢাকাসহ সারাদেশে ডেঙ্গুমুক্ত করতে কাজ করা, ডেঙ্গু বিরোধী অভিযান অব্যাহত রাখা, এডিস মশার বিস্তার রোধে কাজ করা।

‘সবাই মিলে রাজনীতি বাদ দিয়ে, রাজনৈতিক মিছিল, মিটিং বাদ দিয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধে করতে কাজ করতে হবে। ডেঙ্গু বিরোধী অভিযান অব্যাহত রেখে আমরা যে কোনো মূল্যে দেশকে ডেঙ্গুমুক্ত করবো।’

সমাবেশে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, এক সময় ডেঙ্গুকে গুজব বলা হয়েছিল। এখন তারাই বলছে ডেঙ্গু ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। অর্থাৎ সময়ের কাজ সময়ে করতে না পারায় এই অবস্থা হয়েছে। ডেঙ্গু কিন্তু এবারই শেষ না, আগামীতে এই ডেঙ্গু মহামারি আকার ধারণ করতে পারে। কোনো দেশে ডেঙ্গুতে কতজন মারা গেল সেটা দেখার বিষয় না।

‘আমাদের দেশের মানুষকে আমাদের বাঁচাতে হবে। এটাকে বৈশ্বিক সমস্যা বলে পাশ কাটিয়ে যাওয়ার সুযোগ নেই। সেপ্টেম্বরে আর যাতে ডেঙ্গু না বাড়ে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। আসছে ঈদ আমাদের জন্য বিপদ হতে পারে।’

তিনি বলেন, ঈদে অনেক মানুষ বাড়িতে চলে যাবেন। বাসা বন্ধ থাকবে। ফুলের টবে, করিডরে, বাসার সামনে পানি জমে সেখানে ডেঙ্গু হতে পারে। এই বিষয়গুলো লক্ষ্য রাখতে হবে।

সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, এখন মূল কাজ ডেঙ্গু আস্তানা ধ্বংস করা, ডেঙ্গুর বিস্তার রোধ করা। আমাদের এগুলো করতে কোনো অজুহাত, ব্যর্থতা দেখানোর সুযোগ নেই। এ ব্যাপারে কেউ অজুহাত দেখাবেন না। ডেঙ্গু সমস্যাকে জাতীয় সমস্যা বিবেচনা করে কাজ করতে হবে। গাফিলতি না করে ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে কাজ করতে হবে।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, ১৪ দলের শরিক সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, আওয়ামী লীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার, গণতন্ত্রী পাটির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে ডেঙ্গু প্রতিরোধে জনসচেতনতা বাড়াতে প্রচারপত্র বিলি করেন ১৪ দল নেতারা।

আপনার মতামত জানানঃ