কিশোরীকে চাকরির প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশিতঃ ৩:৪৩ অপরাহ্ণ, বুধ, ১১ সেপ্টেম্বর ১৯

জেলা প্রতিনিধিঃ গাজীপুর সি‌টি করপোরেশনের কোনাবাড়ী এলাকায় চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীকে (১৫) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জাহাঙ্গীর আলম (৩০) নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।
বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে আটক করা হয়।
আটক জাহাঙ্গীর নেত্রকোনার কমলাকান্দা উপজেলার শিবপুর এলাকার মো. মা‌নিক মিয়ার ছেলে। তি‌নি কোনাবাড়ী পা‌রিজাত এলাকায় বাসা ভাড়া থাকতেন।

পু‌লিশ ও ভিকটিমের প‌রিবার জানায়, কোনাবাড়ী এলাকায় বড় বোনের ভাড়া বাসায় থেকে চাকরি খুঁজছিলেন ভিক‌টিম। এরপর ভিকটিমের বড় বোন চাকরি দেওয়ার জন্য তাদের পাশের বাসার ভাড়াটিয়া মো. জাকা‌রিয়াকে অনুরোধ করেন। এসময় জাকা‌রিয়া জানায় তার প‌রি‌চিত মো. জাহাঙ্গীর আলম ভিক‌টিমকে চাকরি দিতে পারবেন। সেই সুবাদে মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকালে জাহাঙ্গীরের ভাড়া বাসার সামনে ভিক‌টিমকে নিয়ে যায় জাকা‌রিয়া। পরে জাকা‌রিয়া ভিক‌টিমকে সেখানে রেখে চলে যায়। এ সময় জাহাঙ্গীর ভিক‌টিমকে তার বাসার ভেতর নিয়ে টে‌লি‌ভিশনের সাউন্ড বা‌ড়িয়ে দিয়ে ধর্ষণ করে। একপর‌্যায়ে জাহাঙ্গীর বাসা থেকে বে‌রিয়ে গেলে ভিক‌টিম ‌কৌশলে পা‌লিয়ে গিয়ে তার বোনকে ঘটনা জানায়। পরে বিষয়‌টি স্থানীয়দের জানানো হলে তারা জাহাঙ্গীরকে আটক করে পু‌লিশে দেয়। এ ব্যাপারে ভিক‌টিমের বড় বোন বাদী হয়ে কোনাবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

‌কোনাবাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সাইফুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলমকে গ্রেফতার করে বুধবার দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ভিক‌টিমকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মে‌ডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ