চট্টগ্রামে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের কর্মকর্তা বদলী, দামাচাপা দিতে একাধিক শিক্ষকদের অপচেষ্টা

প্রকাশিতঃ ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ, সোম, ২৬ আগস্ট ১৯

রাজিব শর্মা, চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে আনোয়ারা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর মো. শরিফুল ইসলাম পাটোয়ারীর বদলির আদেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

উপজেলার শিক্ষা অফিসের ৫ বছরের বেশি সময় ধরে অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর হিসাবে শরিফুল ইসলাম পাটোয়ারী কর্মরর্ত ছিলেন। দায়িত্ব থাকাকালীন বিভিন্ন সময়ে চরম অনিয়ম, দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগে বুধবার উপজেলা শিক্ষা অফিসে একটি বদলির আদেশ দিয়ে চিঠি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। খবরটি ছড়িয়ে পড়লে এ বদলি ঠেকাতে উপজেলা চেয়ারম্যানকে কিছু শিক্ষক অনুরোধ করেছেন। তবে উপজেলা চেয়ারম্যান তাদের অনুরোধ রাখেননি বলে জানা গেছে।

এদিকে দুর্নীতি ও বিভিন্ন অনিয়মের কারণে বদলি হওয়া ওই অফিস সহকারীর পক্ষে কতিপয় শিক্ষক তদবির করার বিষয়টি জানাজানি হলে আনোয়ারায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। অভিযোগ উঠে, ওইসব শিক্ষক অভিযুক্ত অফিস সহকারীর কাছ থেকে বিভিন্ন সময় সুযোগ সুবিধা নিয়ে আসছিল। ফলে ওই অফিস সহকারী বিভিন্ন অনিয়মে জড়ালেও তারা কখনো প্রতিবাদ করতো না। কিন্তু সাধারণ শিক্ষক-শিক্ষিকারা অফিস সহকারী শরিফুল ইসলাম পাটোয়ারীর কাছে এক প্রকার জিম্মি ছিল। সে সাধারণ শিক্ষক শিক্ষিকাদের সাথে দুর্ব্যবহারসহ নানাভাবে হয়রানি করতো বলেও তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. কবিরুল ইসলাম দি ক্রাইমকে বলেন, শরিফুল পাঠোয়ারী বদলির চিঠি পেয়েছি। কি কারণে বদলি করা হয়েছে তা জানি না। সরকারি নিয়মে বদলির আদেশ হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জোবায়ের আহমেদ দি ক্রাইমকে বলেন, আনোয়ারায় ৫ বছরের বেশি সময় ধরে তিনি অফিস সহকারীর  দায়িত্ব পালন করে আসছেন।  তবে বিভিন্ন সময়ে অনিয়মের কারণে তাকে বদলি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী বলেন, অফিস বদলীর আদেশটির বিষয়ে শুনেছি। বদলীর বিষয় নিয়ে কিছু শিক্ষক আমার সাথে দেখা করেন সুপারিশ করার জন্য। তবে তাদেরকে আমি বলে দিয়েছি কোন সুপারিশ করা হবে না। বদলীর আদেশ বলবৎ থাকবে।

আপনার মতামত জানানঃ