তিন দিনের জমা পানি,একদিনে ফেলে দিন 

নিজেস্ব প্রতিবেদকঃ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আশপাশের পরিবেশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন। তিনদিনে একদিন, জমা পানি ফেলে দিন। এডিস মশা বংশ বৃদ্ধি করতে দেবেন না। রাজধানীর মাজার রোডে ডেঙ্গু প্রতিরোধে বুধবার (৭ আগস্ট) আয়োজিত এক সচেতনতামূলক র‌্যালির আগে আয়োজিত সমাবেশে নগরবাসীর প্রতি তিনি এ আহ্বান জানান। ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের প্রোগ্রাম অ্যাকশন প্রোগ্রাম। এডিস মশার বিরুদ্ধে আমাদের অ্যাকশন প্রোগ্রাম। যে ডেঙ্গু রোগ জীবনহানি করছে, এই রোগ প্রতিরোধে আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা দিয়েছেন। ডেঙ্গু নির্মূলে আমরা (আওয়ামী লীগ) দেশব্যাপী তিনদিনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। কিন্তু যতদিন পর্যন্ত ডেঙ্গু নির্মূল না হবে, আমাদের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।
নগরবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা যার যার ঘর এবং আশপাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখবেন। স্কুল-কলেজ, প্রতিষ্ঠান পরিচ্ছন্ন রাখবেন। সমাজ পরিচ্ছন্ন রাখবেন। তিনদিনে একদিন, জমা পানি ফেলে দিন।
‘এ অবস্থা মশারি টাঙানোর বিকল্প নেই। আপনারা মশারি টাঙাবেন। রাতে তো টাঙাবেনই, দিনেও টাঙাবেন,’ যোগ করেন তিনি।
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী জানান, সিটি করপোরেশন বলেছে আগামী দু-চার দিনের মধ্যেই এডিস মশা নিধনে কার্যকর ওষুধ ঢাকায় এসে পৌঁছাবে। যে ওষুধের কার্যকারিতা নেই, সে ওষুধ ছিঁটানোর প্রয়োজন নেই। আমরা ভাওতাবাজি করে দায়সারা ওষুধ ছিঁটাতে চাই না।
‘এডিস মশার উপদ্রব থেকে আমরা বাঁচতে চাই। মানুষের চেয়ে মশা শক্তিশালী নয়। সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে এডিস নির্মূলে ও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সফল হবো। নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আগস্ট মাস শোকের মাস। এ মাসে আমরা এডিস নির্মূলে কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। এডিস মশার আতঙ্ক থেকে জনগণকে মুক্তি দিয়ে শান্তি দিতে পারলে, জাতির জনক বঙ্গুবন্ধুর আত্মাও শান্তি পাবে।
সম্প্রতি রাজধানীর পর সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ে ডেঙ্গুর ভয়াবহতা। ঈদুল আজহার ছুটিতে এই রোগ আরো ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কার কথা ইতোমধ্যে জানিয়ে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। সরকারও এই রোগ নিয়ন্ত্রণে নানা পদক্ষেপ হাতে নিয়েছে। তবুও প্রতিদিনই বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। সরকারি হিসাবে বলা হচ্ছে, এ পর্যন্ত দেশজুড়ে ২০ হাজারের বেশি মানুষ এডিসের কামড়ে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ২০ জনের বেশি। যদিও বেসরকারি হিসেবে এ রোগে মৃতের সংখ্যা অর্ধশতাধিক।
কর্মসূচিতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম, ঢাকা-১৪ আসনের সংসদ সদস্য আসলামুল হক, জামালপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য মির্জা আজম, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম রহমত উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
‘পরিষ্কার রাখি চারপাশের পরিবেশ, পরিচ্ছন্ন সমাজ-ডেঙ্গুমুক্ত বাংলাদেশ’ স্লোগানকে সামনে রেখে আয়োজিত র‌্যালিতে কল্যাণপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা কমার্স কলেজ, মডেল একাডেমিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। র‌্যালি শুরুর আগে ওবায়দুল কাদের গরিব-দুস্থদের মাঝে মশারি বিতরণ করেন।

আপনার মতামত জানানঃ