প্রস্রাবে বাধা দেয়ায় পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিতঃ জুন ৪, ২০১৯ । ১৬:২৩
আপডেটঃ জুন ৪, ২০১৯ । ১৬:২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের দক্ষিণ দিল্লিতে একটি বাড়ির সামনে মূত্রত্যাগ করায় এক ব্যক্তিকে থাপ্পড় মেরেছিলেন বাড়ির মালিক। এই থাপ্পড়ই যেন কাল হয়ে দাঁড়াল তার। ওই ব্যক্তির দুই ছেলে এসে বেধড়ক মারপিট করে বাড়ির মালিককে হত্যা করেছে।

পুলিশ বলছে, দক্ষিণ দিল্লির গোবিন্দ পুরি এলাকায় মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটেছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে ওই ব্যক্তির দুই ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত ওই ব্যক্তির নাম লিলু। পুলিশের রেকর্ড বলছে, এই ব্যক্তির স্বভাব ভালো ছিল না। তার বিরুদ্ধে থানায় কয়েকটি মামলা রয়েছে।

রোববার রাতে পুরিতে বিদ্যুৎ চলে যাওয়ার পর লিলু ও তার স্ত্রী বাড়ির বাইরে বসে ছিলেন। দক্ষিণ দিল্লি পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসিপি) চিন্ময় বিশাল বলেন, রাতে প্রতিবেশি ৬৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ লিলুর বাড়ির সামনের রাস্তায় প্রসাব করেন। ওই ব্যক্তির কাছে গিয়ে তাকে মূত্রত্যাগে বাধা দেন। দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। বাক-বিতণ্ডার এক পর্যায়ে ওই বৃদ্ধকে থাপ্পড় মারেন লিলু।

তিনি বলেন, ওই বৃদ্ধকে তাৎক্ষণিকভাবে উদ্ধার করতে এগিয়ে আসেন তার দুই ছেলে। পরে লিলুর সঙ্গে তাদের হাতাহাতি শুরু হয়।

উপ-কমিশনার চিন্ময় বিশাল বলেন, ওই দুই ভাইয়ের একজন রাস্তার ওপর থেকে সিমেন্টের তৈরি একটি স্ল্যাব তুলে এনে লিলুর মাথায় আঘাত করেন। চেতনা হারানোর আগে পর্যন্ত তাকে স্ল্যাব দিয়ে আঘাত করা হয়। পরে তাকে এআইআইএমএস ট্রমা সেন্টারে নেয়া হয়। সেন্টারে নেয়ার আগেই লিলু মারা গেছেন বলে জানান চিকিৎসকরা।

দিল্লি পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, আমরা অভিযুক্ত দুই ব্যক্তিকে শনাক্ত করা হয়েছে। মারামারি করার সময় অভিযুক্তরাও আহত হয়েছেন। আমরা শিগগিরই তাদের গ্রেফতার করবো।

ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেয়েছে নিহত লিলুর বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি চুরি ও ছিনতাইয়ের মামলা রয়েছে।

সূত্র : এনডিটিভি।

আপনার মতামত জানানঃ