মার্কিন-চীন বাণিজ্যযুদ্ধের মধ্যেই চীনকে উপেক্ষা করে তাইওয়ানে বিলিয়ন ডলারের মার্কিন অস্ত্র

প্রকাশিতঃ ৮:২৩ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ৯ জুলাই ১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ট্রাম্প প্রশাসন তাইওয়ানের কাছে ২২০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দিয়েছে। অস্ত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে অত্যাধুনিক আব্রামস ট্যাঙ্ক। মার্কিন-চীন বাণিজ্যযুদ্ধের মধ্যেই যুক্তরাষ্ট্র তাওইয়ানের কাছে এই বিপুল পরিমাণ অস্ত্র বিক্রির সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, আনুমানিক ২২০ কোটি ডলার মূল্যের অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ১০৮টি অত্যাধুনিক আব্রামস ট্যাঙ্ক, ২৫০টি স্টিঙ্গার ক্ষেপণাস্ত্র এবং এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট উপকরণ। চীনের তীব্র আপত্তির মুখেই যুক্তরাষ্ট্র তাইওয়ানে এ অস্ত্র বিক্রি অনুমোদন করলো।

মার্কিন প্রশাসন ২০১০ সালে ঘোষণা করেছিল যে, তাইওয়ানের কাছে দেড় হাজার কোটি ডলারের বেশি মূল্যের অস্ত্র বিক্রি করা হবে। তবে কালেকের ঘোষণা আসার পর তাইওয়ানের কাছে প্রস্তাবিত অস্ত্র বিক্রি ‘তাৎক্ষণিকভাবে বাতিল’ করতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগনের নিরাপত্তা সহযোগিতা সংস্থা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় অর্থনৈতিক ও নিরাপত্তার স্বার্থে তাইওয়ানের সশস্ত্র বাহিনীকে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে, যাতে তারা আস্থাশীল একটি প্রতিরক্ষা সক্ষমতা গড়ে তুলতে পাারে।

তাইওয়ানকে ওই অঞ্চলের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, সামরিক ভারসাম্য ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ শক্তি বলে উল্লেখ করেছে সংস্থাটি। তবে তাইওয়ানকে নিজের ভূখণ্ড বলে দাবি করে থাকে চীন। দ্বীপটি দখল করতে প্রয়োজনে বলপ্রয়োগের ঘোষণাও দিয়ে রেখেছে বেইজিং।

আপনার মতামত জানানঃ