ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোর ইচ্ছা ওয়াশিংটনের নেই

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, ইরানের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ানোর ইচ্ছা ওয়াশিংটনের নেই। তবে একই সঙ্গে তিনি ওমান সাগরে দুটি তেল ট্যাংকারে রহস্যজনক হামলার জন্য ইরানকেই দায়ী করেছেন। অপরদিকে সৌদি আরবও এই হামলার জন্য ইরানকেই দোষারোপ করছে। খবর পার্স ট্যুডে।

ফক্স নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে পম্পেও বলেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যুদ্ধ এড়ানোর জন্য সম্ভাব্য সবকিছু করেছেন। আমরা যুদ্ধ চাচ্ছি না। পারস্য উপসাগরের কৌশলগত এলাকাগুলো দিয়ে আন্তর্জাতিক জাহাজ চলাচলের নিরাপত্তা বিধান করা হবে বলেও প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তিনি।

গত মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে যুদ্ধের বিষয়ে যে মন্তব্য করেছিলেন পম্পেও ফক্স নিউজকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তার পুনরাবৃত্তি করলেন মাত্র। ট্রাম্প মে মাসে ব্রিটেন সফরের সময় ব্রিটিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাতে একাধিকবার বলেছেন, তিনি ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক সংঘাতে যেতে চান না বরং এর পরিবর্তে তেহরানের সঙ্গে তার ভাষায় আরেকটি চুক্তি করার লক্ষ্যে আলোচনায় বসতে চান।

তবে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি, প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফসহ ইরানের সব শীর্ষস্থানীয় নেতারা মার্কিন প্রেসিডেন্টের আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, যে দেশটি একবার আলোচনায় বসে স্বাক্ষরিত চুক্তি লঙ্ঘন করেছে তার সঙ্গে কোনো বিচারবুদ্ধিসম্পন্ন স্বাধীনচেতা দেশ আবার আলোচনায় বসতে পারে না।

আপনার মতামত জানানঃ