গ্যাং কোন্দলে স্কুলশিক্ষার্থী খুনে ৪জন আটক

প্রকাশিতঃ ২:২৬ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ৫ সেপ্টেম্বর ১৯

নিউজ ডেস্কঃ কিশোর গ্যাংয়ের কোন্দলেই রাজধানীর মোহাম্মদপুরের স্কুলছাত্র মহসিন (১৬) খুন হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এখন পর্যন্ত চারজনকে আটক করা হয়েছে।
বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় মোহাম্মদপুরের সাত মসজিদ হাউজিংয়ের পাওনিয়ার গলিতে ছুরিকাঘাতে মহসিনসহ চারজন আহত হন।

গুরুতর আহত অবস্থায় মহসিনকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ৮টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত মহসিন স্থানীয় চাইল্ড হ্যাভেন ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের ১০ম শ্রেণিতে পড়তো।
বাকি আহত তিনজনের মধ্যে সাব্বির (১৭) ও রাকিব (১৭) সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে এবং রুবেল (২৩) ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি।
আহত সাব্বির ও রাকিব নিহত মহসিনের সঙ্গেই লেখাপড়া করতো। রুবেল প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের বিক্রয় প্রতিনিধি হিসেবে চাকরি করে।

জানা যায়, বুধবার রাতে কালভার্টের পাশে আড্ডারত অবস্থায় বেশ ক’জন যুবক এসে মহসিনের কলার ধরে টেনে নিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। মহসিনকে বাঁচাতে গিয়ে গেলে সাব্বির, রাকিব ও রুবেলকেও তারা আঘাত করে। এতে তারা সবাই আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মহসিনকে মৃত ঘোষণা করেন।

রাতেই এ ঘটনায় মোহাম্মদপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ফারুক হোসেন জানান, অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে এ হত্যার ঘটনা ঘটেছে। মূলত কাটাসুরভিত্তিক একটি কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা বাকবিতণ্ডা কেন্দ্র করে চাঁন উদ্যানের একটি কিশোর গ্যাংয়ের ওপর আক্রমণ করে বলে প্রাথমিকভাবে জানা যায়। সন্দেহভাজন চারজনকে আটক করা হয়েছে, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোপাল গণেশ বিশ্বাস বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে। দ্রুত হত্যাকারীদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

আপনার মতামত জানানঃ