চিনিশিল্পকে লাভজনক করতে পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের

প্রকাশিতঃ ৫:০৮ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ১২ সেপ্টেম্বর ১৯

অর্থনৈতিক প্রতিবেদকঃ দেশীয় চিনিশিল্পকে লাভজনক করতে চিনিকলসমূহে বহুমুখী পণ্য উৎপাদনের পরামর্শ দিয়েছে জার্মান বিশেষজ্ঞদল। এছাড়া চিনির পাশাপাশি চিনিকলসমূহে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত ভুট্টা থেকে তেল ও অন্যান্য শিল্পজাত পণ্য উৎপাদনের ওপরও গুরুত্বারোপ করেছে তারা।
বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে জার্মানভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হেইনকেল ড্রাইং অ্যান্ড সেপারেশন গ্রুপের একটি বিশেষজ্ঞদল এ সংক্রান্ত এক প্রেজেন্টেশনে এসব প্রস্তাব দেয়।

শিল্পসচিব মো. আবদুল হালিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার। হেইনকেল গ্রুপের পরিচালক উইলিয়াম ক্রেইগ বিশেষজ্ঞদলের নেতৃত্ব দেন।

পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনে উইলিয়াম ক্রেইগ বলেন, অত্যাধুনিক জার্মান প্রযুক্তির মাধ্যমে জ্বালানি সাশ্রয় করে আখ ও বিট থেকে অধিক পরিমাণ চিনি উৎপাদন করা সম্ভব। চিনি উৎপাদনের পাশাপাশি অ্যালকোহল, বায়োফার্টিলাইজারসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য উৎপাদন করে চিনিশিল্পকে লাভজনক করা যায় বলে তিনি উল্লেখ করেন।
শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, চিনিশিল্পকে লাভজনক করতে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। চিনি ছাড়াও চিনিকলসমূহে অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পণ্য উৎপাদন করে এ খাতকে লাভজনক করতে চায় সরকার। চিনিকলসমূহের উন্নয়নে আর্থিক ও প্রযুক্তিগত দিকসমূহ বিস্তারিত তুলে ধরে শিল্প মন্ত্রণালয়ে পূর্ণাঙ্গ প্রস্তাব দেওয়ার জন্য প্রতিনিধিদলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার বলেন, চিনিকলসমূহের উৎপাদন ক্ষমতা বাড়িয়ে অলাভজনক চিনিকলসমূহকে লাভজনক করা হবে। তিনি এসময় দেশীয় সাংস্কৃতিক মুল্যবোধ ও বাস্তবতা বিবেচনা করে চিনিশিল্প থেকে বহুমুখী পণ্য উৎপাদন এবং বিদেশে রফতানির পরিকল্পনা প্রস্তাবে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য জার্মান বিশেষজ্ঞদলের প্রতি আহ্বান জানান।
এসময় অনুষ্ঠানে শিল্প মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্যশিল্প করপোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত জানানঃ