জাতির পিতার নাম শুনে ক্ষিপ্ত হলেন সেলিনা

বি-বাড়ীয়া প্রতিনিধিঃ বি-বাড়ীয়া জেলার আখাউড়া থানার ছয়গড়িয়া আলহাজ্ব শাহে আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা সেলিনা বেগম জাতির পিতার নাম শুনে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। গত ২০/০৭/১৯ইং শনিবারে ক্রাইম পেট্রোল বিডির সংবাদকর্মীরা ছয়গড়িয়া আলহাজ্ব শাহে আলম উচ্চ বিদ্যালয়ে যান সংবাদ সংগ্রহের জন্য। এসময় ক্রাইম পেট্রোল বিডির সংবাদকর্মীরা ছয়গড়িয়া আলহাজ্ব শাহে আলম উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার মান সম্পর্কে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রশ্ন করেন।

স্বাধীন বাংলার জনক সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বাঙালি ইতিহাসের মহানায়ক জাতির পিতা সম্পর্কে তরুণদের কাছে জানতে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। আমরা জাতির পিতার জীবনী থেকে অনেক কিছু জানতে পারি বাংলাদেশের ইতিহাস সম্পর্কে। ক্রাইম পেট্রোল বিডির এক সংবাদকর্মী যখন ছয়গড়িয়া আলহাজ্ব শাহে আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে জাতির পিতার নাম কি? প্রশ্ন করলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন সহকারী শিক্ষিকা সেলিনা বেগম।

তিনি রেগে গিয়ে বলে; আমরা জানিনা, আমরা আপনার জাতির পিতা নিয়া আছি নাকি? আপনারা কারা? আমাদের সংবাদকর্মীরা তাদের পরিচয় দিলে তিনি বলেন; জাতির পিতা নিয়ে অন্য কোথায় গিয়ে প্রশ্ন করেন, আমাদের ছাত্র-ছাত্রীরা জাতির পিতা নিয়ে ব্যস্ত নাই। আমাদের সংবাদকর্মীরা তাকে শান্ত করার চেষ্টা করেও শান্ত করতে পারেনি, তিনি সংবাদকর্মীদের হামলা-মামলার হুমকি দিতে থাকেন। আমাদের সংবাদকর্মী বলেন; আপা আমাদের জাতির পিতার হলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

কিন্তু প্রশ্ন হলো জাতির পিতার নাম শুনে সহকারী শিক্ষিকা সেলিনা বেগম কেন ক্ষেপে গেলেন?

সহকারী শিক্ষিকা সেলিনা বেগম চিৎকার করে বলেন তোরা এখান থেকে বের হো, আমার কথায় এই বিদ্যালয়ের সকলে উঠাবসা করে, তোরা তো কিছই না দুই টাকার সাংবাদিক। তিনি আরো বলেন; সারাদিন বাচ্চাদের পড়াশুনা করাই তোর জাতির পিতা নিয়ে বসে থাকলে লাভ হবে আমার।

জাতির পিতার নাম শুনে এভাবে ক্ষেপে যাওয়াকে সন্দেহ চোখে দেখছে সাধারণ মানুষ। আমরা ক্রাইম পেট্রোল বিডি পরিবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আর্কষণ করছি।

ছয়গড়িয়া আলহাজ্ব শাহে আলম উচ্চ বিদ্যালয়ে জামাত-বিএনপির লোকজন দখল করে ব্যাপক দুর্নীতি করছে বলে জানান সাধারণ মানুষ ।

আপনার মতামত জানানঃ