ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন আসামিরা

প্রকাশিতঃ ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, মঙ্গল, ৮ অক্টোবর ১৯

ঢাকা: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন এ ঘটনায় গ্রেফতার বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত ১০ নেতা। এর মধ্যে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলও রয়েছেন।

মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) নির্ভরযোগ্য একাধিক সূত্র এ তথ্য জানায়।

এদিকে ফাহাদ হত্যার ঘটনায় রাজধানীর চকবাজার থানায় দায়ের হওয়া মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান এ নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার (৭ অক্টোবর) দিনভর ছাত্রলীগের ১০ জনকে আটক করে পুলিশ। পরে ওইদিন সন্ধ্যায় নিহত ফাহাদের বাবা বরকত উল্লাহ্ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। পরে তাদের এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

পড়ুন>>ফাহাদ হত্যা: জাবি শিক্ষার্থীদের ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

মঙ্গলবার গ্রেফতার বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল, সহসভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, উপ-সমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ, সদস্য মুনতাসির আল জেমি, মো. মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ এবং খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভির ও ইসতিয়াক আহম্মেদ মুন্নাকে পাঁচদিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

গত রোববার (০৬ অক্টোবর) রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭ ব্যাচ) শিক্ষার্থী ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে। সেখানেই মঙ্গলবার দুপুরে তার দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ