যে ব্যাংকগুলো পাওয়া যাবে নতুন টাকা

প্রকাশিতঃ ২:১৪ অপরাহ্ণ, বৃহঃ, ১ আগস্ট ১৯

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রতি বছরের মতো এবারও প্রবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ব্যাংকগুলোর মাধম্যে নতুন নোট বাজারে ছেড়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ১ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) সকাল ১০টা থেকে নতুন নোট বিনিময় শুরু হয়েছে। আগামী ৮ আগস্ট পর্যন্ত (সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিন ব্যতীত) নতুন টাকা নিতে পারবেন যে কেউ। প্রতিদিন বিকেল ৪টা পর্যন্ত এই বিনিময় চলবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন অফিসের কাউন্টার ছাড়াও ঢাকা শহরের বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের ৩০টি শাখা থেকে উল্লিখিত সময়ে ১০, ২০, ৫০ ও ১০০ টাকা মূল্যমানের নতুন নোট, প্রতিটি একটি প্যাকেট করে বিশেষ ব্যবস্থায় বিনিময় করা হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানায়, একজন ব্যক্তি একাধিকবার নতুন নোট গ্রহণ করতে পারবেন না। তবে নোট উত্তোলনকালে কেউ ইচ্ছা করলে কাউন্টার থেকে পরিমাণ নির্বিশেষে যে কোনো মূল্যমানের ধাতব মুদ্রা গ্রহণ করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার সরেজমিন দেখা যায়, বাংলাদেশ ব্যাংকে অন্যান্য সময়ে নতুন টাকার জন্য গ্রাহকের ভিড় থাকলেও আজকের প্রথম দিনে কাউন্টারগুলো ফাঁকা।

এ বিষয়ে দায়িত্বরত এক কর্মকর্তা জানান, আজকে নতুন টাকার বিনিময় শুরু হয়েছে, অনেকেই বিষয়টি জানেন না। এ ছাড়া কোরবানির ঈদে নতুন টাকার চাহিদা কম। এসব কারণে ভিড় কম।

তবে সামনের দিনগুলোতে গ্রাহক বাড়বে বলে প্রত্যাশা করেন তিনি।

এদিকে নতুন টাকা নিতে আসা এক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী আহসান জানান, মতিঝিলে একটা কাজে এসেছিলাম। বাংলাদেশ ব্যাংকে নতুন টাকা পাওয়া যাচ্ছে, শুনে আসলাম। কাউন্টার ফাঁকা, সহজেই নতুন টাকা নিলাম। ঈদে বাড়ি যাব, ছেলেমেয়েরা নতুন টাকা পছন্দ করে, তাদের ঈদ সেলামি দেব।

যেসব ব্যাংকে ও শাখায় নতুন টাকা পাওয়া যাবে

ঢাকায় এনসিসি ব্যাংকের যাত্রাবাড়ী শাখা, জনতা ব্যাংকের আব্দুল গণি রোড কর্পোরেট শাখা, অগ্রণী ব্যাংকের জাতীয় প্রেস ক্লাব কর্পোরেট শাখা, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের মিরপুর শাখা, সাউথইস্ট ব্যাংকের কারওরান বাজার শাখা, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের বসুন্ধরা সিটি (পান্থপথ) শাখা, উত্তরা ব্যাংকের চকবাজার শাখা, সোনালী ব্যাংকের রমনা কর্পোরেট শাখা, ঢাকা ব্যাংকের উত্তরা শাখা, আইএফআইসি ব্যাংকের গুলশান, ন্যাশনাল ব্যাংকের মহাখালী শাখা, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের মোহাম্মদপুর শাখা, জনতা ব্যাংকের রাজারবাগ শাখা, পূবালী ব্যাংকের সদরঘাট শাখা, সাউথইস্ট ব্যাংকের কাকরাইল শাখা, ওয়ান ব্যাংকের বাসাবো শাখা, ব্র্যাক ব্যাংকের শ্যামলী শাখা, ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের দক্ষিণখানের এসএমই অ্যান্ড এগ্রিকালচার শাখা, দি প্রিমিয়ার ব্যাংকের বনানী শাখা, ব্যাংক এশিয়ার ধানমন্ডি শাখা, দি সিটি ব্যাংকের বেগম রোকেয়া সরণি শাখা, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের নন্দীপাড়া শাখা, প্রাইম ব্যাংকের এ্যালিফেন্ট রোড শাখা, নারায়ণগঞ্জের মার্কেন্টাইল ব্যাংকের নারায়ণগঞ্জ শাখা এবং এক্সিম ব্যাংকের শিমরাইল শাখা, গাজীপুরের ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের গাজীপুর চৌরাস্তা শাখা এবং ইউসিবিএলের গাজীপুর চৌরাস্তা শাখা, সাভারের উত্তরা ব্যাংকের সাভার শাখা ও মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের সাভার শাখা এবং ট্রাস্ট ব্যাংকের কেরানীগঞ্জ শাখা।

আপনার মতামত জানানঃ