লন্ডনে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

প্রকাশিতঃ ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ, শুক্র, ২৭ মার্চ ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ লন্ডনের বাংলাদেশ হাইকমিশনে স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিয়ে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছেন। একইসঙ্গে মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতির পিতার প্রতি বিশেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।

লন্ডনের বাংলাদেশ হাইকমিশন জানায়, বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) করোনা ভাইরাসের কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নিয়ম মেনে এবার ভিন্ন আঙ্গিকে ও সীমিত পরিসরে দিবসটি উদযাপন করা হয়।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তার পরিবারের শহীদ সদস্য এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয় কর্মসূচিতে। এছাড়া স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেওয়া রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।

করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে ঘরোয়া পরিবেশে আয়োজিত অনুষ্ঠানে হাইকমিশনার বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এবং ৩০ লাখ শহীদ ও ২ লাখ মা-বোনের সর্বোচ্চ ত্যাগের বিনিময়ে আমরা যে স্বাধীনতা পেয়েছি, মুজিববর্ষে সে স্বাধীনতা দিবস বিশেষ তাৎপর্য বহন করছে। এই ঐতিহাসিক দিনে আমি জাতির পিতা ও তার পরিবারের শহীদ সদস্য এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

হাইকমিশনার বলেন, বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে যুক্তরাজ্য সরকার, জনগণ এবং যুক্তরাজ্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের সম্পর্ক ছিল অবিচ্ছেদ্য ও সুগভীর। যুক্তরাজ্য প্রবাসী বাঙালিরা ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় রিকগনাইজ বাংলাদেশ, স্টপ জেনোসাইড এবং রিলিজ বঙ্গবন্ধুসহ বিভিন্ন আন্দোলন গড়ে তুলে বাংলাদেশের বাইরে স্বাধীন দেশের জন্য আরেক ধরনের মুক্তিযুদ্ধ চালিয়ে গেছেন। এজন্য আমি প্রবাসী বাংলাদেশিদেরও শ্রদ্ধা জানাই।

তিনি বঙ্গবন্ধুকে বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের কূটনৈতিক সম্পর্কের আলোকিত পথিকৃৎ অভিহিত করে বলেন, বাংলাদেশ হাইকমিশন লন্ডন যুক্তরাজ্যে ব্রিটিশ সরকার ও প্রখ্যাত ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে এ বছরের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ উদযাপনের পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি নিয়েছিল। কিন্তু করোনা ভাইরাসের ঝুঁকির কারণে অনেক অনুষ্ঠান ইতোমধ্যেই স্থগিত করতে হয়েছে।

আপনার মতামত জানানঃ