শৃঙ্খলাজনিত ও বিভিন্ন কারণে মোট ৩১৬ জন কর্মকর্তা ওএসডি

প্রকাশিতঃ ২:৪৭ অপরাহ্ণ, বুধ, ১১ সেপ্টেম্বর ১৯

Advertisements

বিশেষ সংবাদদাতাঃ প্রশাসনের প্রয়োজনে নিয়মিত কারণ ছাড়াও শৃঙ্খলাজনিত ও বিভিন্ন কারণে মোট ৩১৬ জন কর্মকর্তা ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) রয়েছেন। এদের মধ্যে শৃঙ্খলাজনিত কারণ এবং অতিরিক্ত ছুটিসহ বিভিন্ন কারণে ৯২ জন কর্মকর্তাকে শাস্তি স্বরূপ ওএসডি করা হয়েছে।

সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ, পদোন্নতি ও প্রেষণ (এপিডি) অনুবিভাগের সর্বশেষ আগস্ট মাসের এক পরিসংখ্যান থেকে এতথ্য জানা গেছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় জানায়, বর্তমানে অবসর-উত্তর ছুটির (পিআরএ) জন্য ওএসডি রয়েছেন পাঁচ জন, লিয়েনে নয় জন, বিভিন্ন প্রশিক্ষণের জন্য ১২ জন এবং ২১০ জন স্ট্যাডি লিভের (শিক্ষা ছুটি) জনিত কারণে ওএসডি রয়েছেন। পিআরএ, লিয়েন, প্রশিক্ষণ ও স্ট্যাডি লিভের কারণে যে সব কর্মকর্তাদের ওএসডি করা হয়, সেগুলো প্রশাসনের ভাষায় নিয়মিত ওএসডি বলা হয়।

সর্বশেষ জামালপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবীরকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বা ওএসডি করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ন্যস্ত করা হয়। এক নারীর সঙ্গে ভিডিও কেলেঙ্কারির ঘটনায় গত মাসে জামালপুরের ডিসিকে শৃঙ্খলাজনিত কারণেই উপসচিব মর্যাদার এ কর্মকর্তাকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ওএসডি করে। তাকে ওএসডি করা শাস্তি স্বরূপ ওএসডি হিসেবেই দেখছেন জনপ্রশাসনের কর্মকর্তারা। যদিও প্রশাসনের আদেশে কারণ উল্লেখ ছিল না।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তরা জানান, বর্তমানে ওএসডি’র সংখ্যা আগের তুলনায় অনেক কমে এসেছে। প্রশাসনে কয়েক স্তরের কর্মকর্তার মধ্যে সহকারী সচিব হতে সিনিয়র সহকারী সচিব, উপসচিব, যুগ্ম-সচিব, অতিরিক্ত সচিব এবং সচিব পদের ৩১৬ জন কর্মকর্তা ওএসডি রয়েছেন। যাদের মধ্যে শৃঙ্খলাজনিত কারণে ওএসডি আছেন ৯২ জন।

জামালপুরর জেলা প্রশাসকের ঘটনা তদন্তে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ গঠিত পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটির মেয়াদ গত ৮ সেপ্টেম্বর থেকে আরও ১০ কার্যদিবস বাড়ানো হয়েছে। দোষী সাব্যস্ত হলে তার চাকরি চলে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

আপনার মতামত জানানঃ