সর্বাত্মক ধর্মঘটে অচলাবস্থা জাবির

প্রকাশিতঃ ৪:১৫ অপরাহ্ণ, সোম, ২৮ অক্টোবর ১৯

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে সর্বাত্মক ধর্মঘট পালন করছেন আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।
সোমবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ৮টা থেকে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনকারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ও পুরনো প্রশাসনিক ভবন এবং বিভিন্ন একাডেমিক ভবনের প্রধান ফটকের সামনে অবস্থান নিয়েছেন। বিকেল ৪টা পর্যন্ত অবরোধ কর্মসূচি চলবে বলে জানান আন্দোলনকারীরা।
ধর্মঘটের কারণে কার্যালয়ে প্রবেশ করতে পারেননি উপাচার্যসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ফলে স্থবির হয়ে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক সব কার্যক্রম। অধিকাংশ বিভাগে নির্ধারিত ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি।
বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানবিকী অনুষদ ও সামজবিজ্ঞান অনুষদ ঘুরে দেখা যায়, ভবনে প্রবেশ করার ফটকে অবস্থান নিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। শিক্ষকদের ভেতরে প্রবেশ করতে দিলেও শিক্ষার্থীদের প্রবেশে বাধা দিতে দেখা যায়। তবে উপাচার্যকে সমর্থনকারী ক’জন শিক্ষক আন্দোলন উপেক্ষা করে ক্লাস নিচ্ছেন বলেও জানা যায়।
অপরদিকে ধর্মঘটের কারণে ভবনে প্রবেশ করতে না পারায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে একটি অনুশীলনী পরীক্ষা নিয়েছেন ইতিহাস বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আরিফা সুলতানা।
এদিকে চলমান আন্দোলনে প্রশাসনিক ও একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বার্থ বিঘ্নিত হচ্ছে জানিয়ে আন্দোলনকারীদের আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা নিরসনের আহ্বান জানিয়েছে উপাচার্যপন্থি শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সম্মিলিত সংগঠন ‘অন্যায়ের বিপক্ষে এবং উন্নয়নের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর’।
এ বিষয়ে আন্দোলনকারী পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু বলেন, উপাচার্যের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ স্বার্থবাদী গোষ্ঠী ছাড়া কোনো শিক্ষক-শিক্ষার্থীই চায় না তাদের অভিভাবক (উপাচার্য) দুর্নীতিগ্রস্ত হোক।

আপনার মতামত জানানঃ