সিলেট সদর আ’লীগের নেতৃত্বে বাদশা-নিজাম

প্রকাশিতঃ ১২:৫৮ অপরাহ্ণ, শুক্র, ২৯ নভেম্বর ১৯

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকঃ অনুপ্রবেশ বিতর্ক কাটিয়ে নতুন করে গঠিত হলো সিলেট সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি। সদ্য ঘোষিত কমিটি বাতিল করে এবার সভাপতি পদে মুক্তিযোদ্ধা মফিজুর রহমান বাদশাহ ও বাতিলকৃত কমিটির সভাপতি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিনকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে।

অর্থাৎ নতুন কমিটি বাতিল করে পূর্বের কমিটি বহাল রাখা হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও সিলেট বিভাগের সমন্বয়ক আহমদ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, সাবেক কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নতুন কমিটিতে বহাল করা হয়েছে।

গত সোমবার (২৫ নভেম্বর) সম্মেলনের পর ওই রাতে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কান্দিগাও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিনকে সভাপতি ও উপজেলার মোগলগাও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিরণ মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়।

কিন্তু কমিটি ঘোষণার পর হিরণ মিয়াকে নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেনের দ্বারস্থ হন। পরদিন মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) রাতে ঘোষিত নতুন কমিটি বিলুপ্ত করা হয়।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ বলেন, হিরণ মিয়া যুক্তরাজ্যের ক্রয়ডন শাখা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। ২০১১ সালে তিনি জেলার আওয়ামী লীগে যুগ্ম সম্পাদক সুজাত আলী রফিকের হাত ধরে এসে দলে ভিড়ে ইউনিয়ন নির্বাচন করে পরাজিত হন। এরপর ২০১৬ সালে তিনি নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ২৩ মার্চ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে ৭নং মোগলগাঁও ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন হিরণ মিয়া।

তিনি নৌকা প্রতীকে ৫ হাজার ৯২৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শামসুল ইসলাম টুনু আনারস প্রতীকে ৫ হাজার ৪০২ ভোট পেয়েছিলেন।

আপনার মতামত জানানঃ