হরিপুর ৩ জন মাদক সেবনের উদ্দ্যেশে বহনকারী কে ,ভ্রাম্যমান আদালতে ৭ দিনের জেল

প্রকাশিতঃ ৯:২৭ অপরাহ্ণ, রবি, ১ ডিসেম্বর ১৯

মোঃ আনোয়ার হোসেন; হরিপুর উপজেলা প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও জেলায় হরিপুর উপজেলায় ৫ নং হরিপুর সদর ইউনিয়নে মসানগাঁও বাজারে সংলগ্ন বিজিপি ক্যাম্পে নিকটে  মোঃ রেজাউল করিম (২৫)পিতাঃ রাজু গ্রামঃ ভবানন্দপুর, মোঃ হালিম (৩০)পিতাঃ মোঃ জবেদ আলি গ্রামঃ মশানগাঁও, মোঃ আমিরুল ইসলাম(৩০) পিতাঃ লুৎফর রহমান,বালিহারা,সকলের উপজেলা হরিপুর,তারা মটর সাইকেল যোগে আনুমানিক রাত দশটা দিকে পৌছালে, মশান গাঁও ক্যাম্পের বিজিপির টহল দল তাদের গতি রোধ করে।
বিজিপি দল তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসা বাদ করলে,অবস্থা বেগতি দেখে তারা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে।বিজিপি দল জাপটে ধরে আটক করে,এমতাবস্থায় তাদের দেহ তল্লাশি করলে দেশীয় মদের বোতল পায়। তারা স্বীকার করে সেবনের উদ্দ্যেশে বহন করছে।গতকাল রাতটা দশটা দিকে আটক করে ক্যাম্পে নিয়ে যায়।বিষয়টি ক্যাম্প কর্তৃপক্ষ  উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( পুলিশ) কে অবহিত করে।প্রাথমিক অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে তারা মাদক সেবন করে বিভিন্ন সময় অপরাধ সংগঠি করে। বিষয়টি তদন্ত করার জন্য ১-১২-২০১৯ইং তারিখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃআব্দুল করিম মহোদয় সরেজমিনে পরিদর্শন করেন, স্থানীয় জনসাধারণে নিকট খোজ নিয়ে ভ্রাম্যমান আদালতে মাধ্যমে রেজাউল ও হালিম কে সাত দিনে বিনাশ্রমে জেল প্রদান করে কারাগারে প্রেরণ করেন।এবং আমিরুলকে পাচঁ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল করিম মহোদয় এর নিকট এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান,রেজাউল ও হালিম, আমিরুল মাদক সেবনের উদ্দ্যেশ বহন করছিল। মশানগাঁও ক্যাম্প দায়িত্বে থাকা অফিসারের মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত হওয়ার পর আমি বিষয়টি তদন্ত করে ৪২ ধারায় শাস্তি ব্যবস্থা করেছি। হরিপর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( পুলিশ) নিকট এই জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান,বিষয়টি আমি বিস্তারিত বলতে পারবো না,তবে যেটুকু জেনেছি তারা মাদক সেবনকারী ও বিভিন্ন সময় অপরাধ সংঘটিত সাথে জড়িত।

আপনার মতামত জানানঃ