‘আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে নির্বাচন থেকে সরে, গণতন্ত্রকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায় বিএনপি’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, নির্বাচন পরাজয় ও আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে গিয়ে গণতন্ত্রকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। এটাই তাদের রাজনীতি।

মহামারী করোনার মধ্যেও জীবন-জীবিকা সমন্বয় করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি বাস্তব সম্মত বাজেট প্রকাশ করা হয়। সেখানেও বিএনপি নামক একটি দল পানি ঘোলা করার চেষ্টা করেছে।

মঙ্গলবার (৮ জুন) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আব্দুস সালাম হলে প্রয়াত জননেতা মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীর স্মরণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি নেতা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এক বক্তব্যের সমালোচনা করে জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, তিনি আবার যুদ্ধের ঘোষণা দিয়েছেন। নির্বাচন ও আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে তারা এখন নির্বাচন বয়কট করে মূলত গণতন্ত্রকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। যারা নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ায় তারা ভীতু ও অগণতান্ত্রিক রাজনীতিতে বিশ্বাসী।

এর আগে সোমবার (৭ জুন) সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা অনুষ্ঠানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘অনেকেই বিএনপিকে আন্দোলনের কথা বলেন। ২০১৪ ও ২০১৮ সালে বিএনপি আন্দোলন করেছে। জনগণ সারা দেশ বন্ধ করে দিয়েছিল। বিএনপি সময় হলে আন্দোলন করবে। এখনও আন্দোলনের ডাক দেওয়ার সময় আসেনি। সময় হলেই আন্দোলনের ডাক আসবে। ছাত্র-যুবকরা মাঠে না নামলে সফলতা কঠিন। ছাত্র-শ্রমিক-যুবক-তরুণদের সংগঠিত করে তাদের নেতৃত্বে রাজপথে গণঅভ্যুত্থান হবে।’

জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে বহু ষড়যন্ত্র হয়েছে, আজও হচ্ছে। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে শুধু দেশের রাজনীতিতে নয়, বিশ্ব রাজনীতিতে তিনি আদর্শ নেতায় পরিণত হয়েছেন। সারা বিশ্ব যখন মহামারি করোনায় আক্রান্ত, বাংলাদেশেও বাদ যায়নি। তখন শেখ হাসিনার সুযোগ্য ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এবং বৈজ্ঞানিক চিন্তার কারণে বাংলাদেশে বহুগুণে রক্ষা পেয়েছে। যেখানে আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে তছনছ হয়ে গেছে, সেখানে আল্লাহর রহমতে বাংলাদেশর পরিস্থিতি বহুগুণে স্বাভাবিক রয়েছে।