করোনা: ভুল তথ্য প্রচার নজরে আসলে জানাতে বলেছে সরকার

বিশেষ প্রতিবেদকঃ করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বা অন্য কোনোভাবে মিথ্যা বা ভুল তথ্য প্রচার নজরে আসলে তা জানাতে বলেছে সরকার। তথ্য অধিদপ্তর বা জাতীয় জরুরি সেবার নম্বরে অভিযোগ জানানো যাবে।
করোনা ভাইরাস সম্পর্কে অহেতুক আতঙ্কিত না হয়ে তা প্রতিরোধে সতর্কতা অবলম্বনের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।
আর করোনা ভাইরাস সম্পর্কে জনসচেতনতার জন্য একটি সেল গঠন করা হচ্ছে বলেও সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।
সরকারি তথ্য বিবরণীতে বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বা অন্য কোনোভাবে মিথ্যা বা ভুল তথ্য প্রচার নজরে আসলে তথ্য অধিদফতরের সংবাদকক্ষের ফোন নম্বর: ০২-৯৫১২২৪৬; ০২-৯৫১৪৯৮৮; ০১৭১৫-২৫৫৭৬৫; ০১৭১৬-৮০০০০৮ এবং ই-মেইল[email protected]/[email protected]  অথবা ৯৯৯-এ নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য সর্বসাধারণের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে।
বিদেশফেরত ব্যক্তিদের অবশ্যই ১৪ দিন বাড়িতে অবস্থানের পরামর্শ দিয়েছে রোগতত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।
কোয়ারেন্টিনের এই ১৪ দিন বাড়িতে অবস্থানের ক্ষেত্রে তাদের স্বজনদেরও সচেতন থাকতে হবে। এক্ষেত্রে স্বজন, বাড়িওয়ালা, প্রতিবেশিসহ সমাজের সকলের সহযোগিতা কামনা করছে সরকার।
সাধারণ লক্ষণ উপসর্গ নিয়ে সরাসরি না এসে বাসায় থেকেই আইইডিসিআর এর হটলাইনে যোগাযোগ করে উপদেশ ও পরামর্শ পাওয়া যাবে।
করোনা ভাইরাস সম্পর্কে যে কোন পরামর্শের/উপদেশের জন্য উল্লেখিত হটলাইনে যোগাযোগের অনুরোধ জানানো হয়েছে : ৩৩৩, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৪০১-১৮৪৫৫১; ০১৪০১-১৮৪৫৫৪; ০১৪০১-১৮৪৫৫৫; ০১৪০১-১৮৪৫৫৬; ০১৪০১-১৮৪৫৫৯; ০১৪০১-১৮৪৫৬০; ০১৪০১-১৮৪৫৬৮; ০১৯২৭-৭১১৭৮৫; ০১৯৩৭-০০০০১১; ০১৯২৭-৭১১৭৮৪ এবং ০১৯৩৭-১১০০১১।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হটলাইন নম্বর হচ্ছে-১৬২৬৩। এছাড়া ফেসবুক, মেসেঞ্জার ও ই-মেইল বার্তা পাঠানো যাবে। ফেসবুক আইডি: Iedcr, COVID-19 Control Room, e-mail: [email protected]
তথ্য মন্ত্রণালয়ে ‘করোনা সচেতনতা সেল’ 
রোববার (২২ মার্চ) সচিবালয়ে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তথ্য মন্ত্রণালয়ে ‘করোনা সচেতনতা সেল’ গঠনের কথা জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন যে, প্লেগের পর পৃথিবীতে এতবড় দুর্যোগ আর আগে আসেনি। প্লেগে কয়েক কোটি মানুষ মারা গিয়েছিল। আর নভেল করোনায় ইতিমধ্যে তিন লক্ষের মতো মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। হাজার হাজার মানুষ মৃত্যুবরণ করেছে। এটি একটি বৈশ্বিক দুর্যোগ। আমরা যে যার অবস্থান থেকে চেষ্টা করছি, এই দুর্যোগের হাত থেকে দেশ-জাতি-রাষ্ট্রকে রক্ষা করার জন্য। তারই প্রেক্ষিতে জনগণকে সচেতন করার জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ের কিছু দায়িত্ব রয়েছে। সেই দায়িত্ববোধ থেকে আমরা  জনসচেতনতার জন্য সেল গঠন করতে যাচ্ছি। সেখানে টেলিভিশন, বেতার, গণযোগাযোগ অধিদপ্তর, তথ্য অধিদফতরসহ বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি থাকবে।
‘প্রজ্ঞাপন জারি করার পর এই ‘সেল’ মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে এবং করোনা প্রতিরোধে গঠিত টাস্কফোর্সের সাথে সমন্বয় করে কাজ করবে।’
আগে থেকেই তথ্য মন্ত্রণালয় দেশের বিশিষ্ট গুণীশিল্পী, মিডিয়া ও চিত্রজগতের ব্যক্তিদের নিয়ে করোনা প্রতিরোধে জনসচেতনতামূলক ফিলার তৈরি করে বিটিভি’র মাধ্যমে প্রচার করে আসছে ও অন্যান্য টিভি’তে পাঠানোর পর অনেকেই প্রচার করেছে বলে জানান মন্ত্রী।