ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  Uncategorized   »   মেহেরপুর সড়ক ও জনপথের ফাঁকা জায়গায় গাছের চারা না থাকলেও সাইন বোর্ড আছে সারি সারি

মেহেরপুর সড়ক ও জনপথের ফাঁকা জায়গায় গাছের চারা না থাকলেও সাইন বোর্ড আছে সারি সারি

October 21, 2016 - 3:01 PM

আল-আমীন,মেহেরপুর:সবুজে সবুজে বাংলাদেশের যখন স্বপ্ন দেখছেন জননেত্রী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ঠিক তখন একদল দূর্নীতি পরায়ন সরকারী কর্মকর্তা ও ঠিকাদারের যোগসাজোসে বনায়নের নামে অর্থ লুটপাট করেছে।তেমনি ঘটনা ঘটেছে মেহেরপুর জেলায় সড়ক ও জনপথের ফাঁকা জায়গা গুলোতে ফলজ বনজ ঔষধী গাছে চারা থাকায় কথা থাকলের আছে শুধু সাইন বোর্ড আর সাইন বোর্ড।২০১৫-২০১৬অর্থ বছরে ১লক্ষ ৪৪ হাজার টাকার বৃক্ষ রোপনের জন্য দরপত্র আহবান করে।ঠিকাদার মোশাফর হোসেন কার্য্যাদেশ পাই।মেহেরপুর সদর থেকে গাংনীর ঝিনিরপুল পাড়া পর্যন্ত ৪ হাজার ৪শত চারা রোপন করেন চলতি ৩ মাসের মধ্যে সারি সারি সাইন বোর্ড ছাড়া চারা দেখা মেলেনা কিন্ত ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের শর্ত ছিলো গাছ লাগানো দিন থেকে ২বছর দেখভাল করা ।
সরোজমিনে দেখা গেলো ৭দিন যাবত একজন পাহারাদার নিয়োজিত ছিলো পাহারা শেষ গাছ গুলো শেষ অবশিষ্ঠ শুধু সাইন বোর্ড।সরকারের গাছ লাগানো উদ্দ্যেশ ছিলো প্রকৃতিক সম্পদে ভরে দেয়া পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা। মানুষের বেঁচে থাকার অক্রিজেন গ্রহন করাসহ নানান উপকারিতার চিন্তা করে টাকা খরচ করে ছিলেন।দুর্নীতিবাজ কর্মকতা ও ঠিকাদারের যোগসাজছে গাছ লাগানো নামে তামাশা করে অর্থ লুটপাট করছে।

ঠিকাদার মোশাফর হোসেন সাথে যোগাযোগ করলে তার ব্যবহারিত মোবাইল ফোনটি তার স্ত্রীকে দিয়ে রিসিভ করান।

সড়ক ও জনপথের উপপরিচালক আব্দুল মান্নান জানান,এই গাছ গুলো দুই বছর যাবদ রক্ষনাবেক্ষন ঠিকাতারের ।

এস ডি নজরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন অফিস সময়ে ফোন দিয়েন কথা হবে।কিন্তু তার সাথে অফিস সময়ে ফোন দিলে ফোন রিসিফ করেননি।

আপনার মতামত জানানঃ