সাংবাদিককে হুমকি দেওয়ায় জেল খাটেন শাহরুখ

বিনোদন ডেস্কঃ বলিউড কিং শাহরুখ খান সিনেপ্রেমীদের হৃদয়জুড়ে দিনের পর দিন রাজত্ব করে আসছেন। কিন্তু একবার তলোয়ার হাতে সাংবাদিককে হুমকি দেওয়ায় জেল খাটতে হয়েছিল বলিউড কিং শাহরুখকে।

নব্বই দশকে ‘কাভি হাঁ কাভি না’ সিনেমার কাজ চলমান অবস্থায় এ ঘটনা ঘটে। এর বছর দু’য়েক আগেই গৌরীকে বিয়ে করেন শাহরুখ। সেই বিয়ে অল্প দিনেই দিনেই ভাঙ্গনের গুঞ্জন উঠেছিল একটি মিথ্যা গুজব সংবাদের কারণে।

খবরে বলা হয়েছিল, এক সহ-অভিনেত্রীর সঙ্গে নাকি প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছেন ‘বাদশাহ’। গুজবটি কানে যায় স্ত্রী গৌরীরও। ব্যাপারটা এত দূর পর্যন্ত গড়ায় যে শাহরুখকে বিয়ে করাটা ঠিক হয়েছে কি না এমন প্রশ্নও উঁকি মেরেছিল গৌরীর মনে। গোটা বিষয়ে উত্তেজিত হয়ে মেজাজ হারিয়েছিলেন শাহরুখ।

সেই গুজব ঠেকাতে পর্দার রোমান্টিক নায়কের ইমেজ ছিঁড়ে বেরিয়ে এসেছিল বদমেজাজি স্বভাবের ছেলেটা! ঠিক কী করেছিলেন বলি তারকা? এক সাক্ষাৎকারে সেই গল্পই নিজের মুখে বলেছিলেন এই বলিউড বাদশা।

ক্ষুব্ধ শাহরুখ সমস্যা মেটাতে সোজা সেই সাংবাদিককে ফোন করেন, যিনি সেই খবরটি লিখেছিলেন। সাংবাদিক জানান, তিনি মজা করে খবরটি লিখেছিলেন। তার পরে শাহরুখ নাকি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। শুধু তা-ই নয়, তলোয়ার হাতে ওই সাংবাদিকের বাড়ি পৌঁছে যান শাহরুখ। সে কথা শাহরুখই জানিয়েছিলেন ওই সাক্ষাৎকারে।

বলিউড তারকা বলেন, সেখানে গিয়ে খুব খারাপ আচরণ করি আমি। বিয়ের সময়ে আমার শ্বশুর আমাকে একটি উপহার দিয়ে বলেছিলেন, তার মেয়েকে রক্ষা করতে হবে। যদিও সেই ঘটনায় গৌরীকে কেউ কিছু বলেনি, কিন্তু আমার কেন জানি না মনে হলো, বিয়ের তলোয়ারটিই সব চেয়ে ভালো অস্ত্র।

সাংবাদিকের বাড়ি ঢোকার আগে বাইরে এক কম বয়সী ছেলের সঙ্গে মুখোমুখি হতেই তিনি তার পায়ে কোপ বসান। প্রসঙ্গত, আনুষ্ঠানিকভাবেই তার বিয়েতে সেই কুকরি বা ছোট তলোয়ার উপহার দিয়েছিলেন গৌরীর বাবা।

সেই ঘটনার এক দিন পর ‘কাভি হাঁ কাভি না’-এর সেটে পুলিশ গিয়ে অভিনেতাকে গ্রেপ্তার করে। থানায় নেওয়া হয় শাহরুখকে। সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ায় জামিনের কোনো উপায় ছিল না। শাহরুখকে কেবল একটি ফোন করার অনুমতি দেওয়া হয়। ফোন হাতে পেয়ে পরিবারকে জানানোর বদলে সেই সাংবাদিককে ফোন করে হুমকি দেন। বলেন, ‘এ বার হাজতেও চলে এসেছি। বেরিয়ে তোমাকে কেটে ফেলব’।

যদিও এমন কিছুই আর করেননি শাহরুখ। মনের রাগ মনেই রেখে দিয়েছিলেন। শেষমেশ গোটা ঘটনা জানতে পেরেই এগিয়ে এসেছিলেন অভিনেতা নানা পাটেকার। তাঁর সাহায্যে জামিন পান ‘বাদশা’।

এই ঘটনার পর গৌরী খুব রেগে যান। শাহরুখ তাই নিজের মধ্যে প্রতিশোধস্পৃহা কমানোর চেষ্টায় মনোনিবেশ করেন। আর আজ সেই কাজ তিনি করে উঠতে পেরেছেন বলেই মনে করেন বলিউড সুপারস্টার।