ক্রাইম পেট্রোল বিডি  »  আন্তর্জাতিক   »   সিরিয়ায় আরো যুদ্ধবিমান পাঠাচ্ছে রাশিয়া

সিরিয়ায় আরো যুদ্ধবিমান পাঠাচ্ছে রাশিয়া

October 1, 2016 - 11:30 AM

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ায় আরো যুদ্ধবিমান পাঠাচ্ছে রাশিয়া।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, সিরিয়া নিয়ে কূটনীতি এখন লাইফ সাপোর্টে আছে, তবে মারা যায়নি।

রাশিয়ার একটি সংবাদপত্রের বরাত দিয়ে শনিবার রয়টার্স অনলাইনের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সিরিয়ার আলেপ্পোয় যুদ্ধ অব্যাহত রয়েছে। রাশিয়ার সমর্থনপুষ্ট সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের অনুগত সেনাবাহিনী আলেপ্পোয় বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত অঞ্চল দখলে নেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ২০১১ সাল থেকে আলেপ্পোর পূর্বাঞ্চল বিদ্রোহীদের শক্তিশালী ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত।

রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার যুদ্ধবিরতি চলার মধ্যেই আলেপ্পোয় হামলা চালায় সিরিয়ার সরকারি বাহিনী। যুদ্ধবিরতি শেষে এ অঞ্চলে জোরালভাবে হামলা চালাতে থাকে তারা। সিরিয়া গৃহযুদ্ধে সবচেয়ে বেশি যুদ্ধমুখর অঞ্চল এই আলেপ্পো।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ তৃতীয় দিনের মতো টেলিফোনে কথা বলেছেন। রাশিয়ার শীর্ষ এ কূটনীতিক কেরিকে বলেছেন, আলেপ্পোর পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে আরো যা যা করা দরকার, তা করতে আগ্রহী মস্কো।

ল্যাভরভ অভিযোগ করেছেন, সিরিয়ার মডারেট বিদ্রোহীদের কাছ থেকে সন্ত্রাসীদের আলাদা করতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার যুদ্ধবিরতি ভঙ্গ করে ৯ সেপ্টেম্বর হামলা চালায় সন্ত্রাসীগোষ্ঠী আল-নুসরা ফ্রন্ট।

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্র পরিষ্কার করেছে, সিরিয়া নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে কূটনীতি বন্ধ করতে এখনো আগ্রহী নয় তারা। মার্কিন পররাষ্ট্র বিভাগের মুখপাত্র মার্ক টোনার বলেছেন, ‘এটি (কূটনীতি) এখন লাইফ সাপোর্টে, তবে শেষ হয়ে যায়নি… আমরা এখনো দরজা বন্ধ করতে স্থির নই।’

অন্যদিকে সিরিয়ায় শুক্রবার পাল্টপাল্টি হামলায় নিহত হয়েছে কমপক্ষে ২৩ জন বেসামরিক লোক। সিরিয়া গৃহযুদ্ধ পর্যবেক্ষণকারী লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে এ তথ্য জানিয়েছে।

অবজারভেটরি আরো জানিয়েছে, আলেপ্পোর পূর্বাঞ্চলে বিদ্রোহীদের ওপর অজ্ঞাতনামা বিমান হামলায় নিহত হয়েছে ১২ জন বেসামরিক লোক। ধারণা করা হচ্ছে, সিরিয়ার সরকারি বাহিনী এ হামলা চালিয়েছে। স্থানীয় হাসপাতালগুলো ওষুধ ও সরঞ্জামের অভাবে আহতদের সেবা দিতে পারছে না।

এদিকে শুক্রবার সরকারনিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে গোলার হামলায় নিহত হয়েছে কমপক্ষে ১১ জন। বিদ্রোহীদের হামলায় এসব বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জেনেভায় জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিল সিরিয়ায় সহিংসতা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। এ-সম্পর্কিত একটি প্রস্তাবও পাস হয়েছে। তবে রাশিয়া এর বিরোধিতা করেছে।

আপনার মতামত জানানঃ